Header Ads

ফেসবুকে চালু হচ্ছে 'ডাউনভোট' বাটন



পৃথিবীর জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুক। ফেসবুক পোস্টে লাইক বাটন খুবই জনপ্রিয়। কিন্তু ফেসবুকে আপত্তিকর বা অপছন্দের মন্তব্য যারা মুছে ফেলতে বা লুকিয়ে রাখতে চান, তাদের জন্য আসছে 'ডাউনভোট' বাটন।

এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ইতোমধ্যে সীমিত আকারে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু করেছে ফেসবুক। তবে এটিকে 'ডিসলাইক' বাটন বলতে নারাজ তারা। ফেসবুক ব্যবহারকারীরা বহুদিন ধরেই একটি 'ডিসলাইক' বা অপছন্দ করার বাটন যোগ করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রের অল্পসংখ্যাক ফেসবুক ব্যবহারকারী পরীক্ষামূলকভাবে 'ডাউনভোট' বাটন ব্যবহারের সুযোগ পাচ্ছেন। 'কেট ক্রাঞ্চ' নামের একটি সাইটের কাছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ 'ডাউনভোট' বাটন নিয়ে তাদের নিরীক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ডাউনভোট বাটনের নিজস্ব কিছু আলাদা বৈশিষ্ট্য রয়েছে৷ কমেন্ট সেকশনে চালু হতে চলেছে ডাউনভোট বাটন৷ প্রাথমিকভাবে এটি ডিজলাইক বাটনের মতোই কাজ করবে৷ তবে যারা কমেন্ট বা পোস্টে ডিজলাইক বাটনের ব্যবহার করবেন, তাদের জন্য সেই অপছন্দের পোস্ট বা কমেন্ট হাইড করে দেওয়া যাবে৷ আর সেটি করতে পারবেন যিনি ওই পোস্ট বা কমেন্ট করেছেন, তিনি৷

কমেন্টটি অশালীন নাকি অপ্রাসঙ্গিক, তা জানানোর ‘অপশন’ থাকবে৷ ফেসবুক জানিয়েছে, রিঅ্যাকশন বাটন চালু করা হবে৷ এই বাটনের সঙ্গে যুক্ত হবে ডাউনভোট বাটন। বিশেষ করে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে এখন থাম্পস আপ বা লাইক বাটন চালু আছে। এই বাটনে থাম্পস ডাউন বা ডিসলাইক বাটন চালু করতে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছে ফেসবুক।

বৃহস্পতিবার ফেসবুকের পরীক্ষানিরীক্ষা প্রকাশ্যে আসে৷ তবে কিছু সময় পরেই তা তুলে নেওয়া হয়৷ তবে ঠিক কবে নাগাদ এই বাটনটি চালু হবে সে বিষয়ে পরিস্কার করে ফেসবুক কিছু জানায়নি। তাদের ভাষ্য, এটি এখনও পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর্যায়ে রয়েছে।

ফেসবুক ২০১৬ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ব্যবহারকারীদের পোস্টে লাইক বাটনের সঙ্গে নতুনভাবে লাভ, হাহা, ওয়াও, স্যাড এবং অ্যাংরি ইমোটিকন যুক্ত করে। আর শুরু থেকেই বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে ইমোটিকনগুলো। সম্প্রতি এক বিবৃতিতে ফেসবুকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, প্রায় ৩০ হাজার কোটি রিঅ্যাকশন এর মধ্যে প্রায় ১৭৯ কোটিরও বেশি ব্যবহারকারীই কেবল লাভ রিঅ্যাকশন ব্যবহার করেছেন।

No comments

Powered by Blogger.